সাইফ স্পোর্টিংয়েই থাকলেন জামাল ভূঁইয়া

বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১-০৮-২০১৯ ০৪:৩২:৩৩ am

টানা তৃতীয় মৌসুমের জন্য সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হলেন জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। আজ (মঙ্গলবার) ক্লাবটির সঙ্গে আগামী মৌসুমের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন এ সময়ের দেশসেরা এ ফুটবলার।


চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করার পর জামাল ভূঁইয়া বলেছেন, ‘ভালোলাগা থেকেই ক্লাবটির সঙ্গে আবার চুক্তিবদ্ধ হলাম। ক্লাবটি এবারও তারুণ্য নির্ভর দল করবে। আমি এখানে খেলেই গত দুই মৌসুম স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেছি। তাই আবারও থেকে গেলাম।’


জামাল ভূঁইয়া ছিলেন ডেনমার্ক প্রবাসী। ২০১৪ সালে তিনি শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবে নাম লিখিয়ে বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবলে খেলা শুরু করেন। দুই মৌসুম কাটিয়ে তিনি যোগ দিয়েছিলেন শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রে। ২০১৭ সালে তিনি নাম লেখান সাইফ স্পোটিংয়ে। পরপর দুই মৌসুম খেলার পর আবারও তিনি সেই ক্লাবে থেকে গেলেন।


সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসির উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, ‘আমাদের দলের ৯০ ভাগ খেলোয়াড় অনূর্ধ্ব-২০। আমরা মনে করছি তরুণদের আদর্শ ফুটবলার জামাল ভূঁইয়া। নতুনরাই জামালের কাছে শিখবে। তাই তাকে আবার রেখে দিলাম।’


পারিশ্রমিকের বিষয়ে সাইফের এ কর্মকর্তা বলেন, ‘জামাল আগের মতোই বেতন পাবেন। বছরে তার বেতন ৬০ লাখ টাকার বেশিই হবে। তিনি এবারও আমাদের ক্লাবের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকের ফুটবলার।’


জামাল ভূঁইয়া জাতীয় দলেরও অধিনায়ক। শীর্ষ স্থানীয় বেশ কয়েকটি ক্লাব এবার তার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল। কিন্তু জামাল আগে থেকেই সাইফে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে রাখায় অন্য কোনো ক্লাবের সঙ্গেই আলোচনা করেননি বলে জানালেন, ‘নাম বলবো না। তবে শীর্ষস্থানীয় গোটাচারেক ক্লাব আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল। আমি সাইফকে আগেই কথা দিয়েছিলাম।’


সাইফে কেন থাকলেন? শুধুই কী পারিশ্রমিকের জন্য? ‘না। টাকাটা আমার কাছে মুখ্য নয়। সাইফে খেলতে আমার ভালো লাগে। এখানে সব ঠিক আছে। কোনো ঘাটতি নেই। কোনো কিছু চাইলেই দিয়ে দেয়। তাই আর বিকল্প ভাবিনি’-বলেছেন জামাল ভূঁইয়া।

আপনার মতামত লিখুন